• ঢাকা
  • রবিবার, ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১০ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

রাত ৪:১৩

অযথা ঘোরার শাস্তি খোলা রাস্তায় বসে ৫০০ বার লেখা ‘আমি দুঃখিত…’


Share with friends

প্রকাশিত: ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ, ২১ এপ্রিল ২০২০

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে পুলিশের পক্ষ থেকে সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে চট্টগ্রামে। তবে বিনা প্রয়োজনে বাসা থেকে বের না হতে বারবার প্রচার এবং পুলিশি টইলও মানছে না অতিউৎসাহীরা। নগরীর অলিগলি এবং পাড়া-মহল্লা সড়কে বেশিরভাগ কিশোর-যুবকরা আড্ডা দিচ্ছে। পুলিশ জরিমানা বা শাস্তি দিলেও এবার ব্যতিক্রমী এক শাস্তি পেয়েছে কিশোর-যুবকদের। পুলিশ জানায়, সোমবার (২০ এপ্রিল) বিকেলে নগরীর সিআরবি এলাকায় টহল দেওয়ার সময় সেখানে আড্ডা এবং অহেতুক ঘোরাঘুরি করছে কিছু কিশোর ও যুবক। তাদের প্রত্যেককে বাসা থেকে বের হওয়ার কারণ জানতে চান পুলিশ। তবে কয়েকজন তাদের প্রয়োজনীয় কারণ জানতে পারলেও বেশিরভাগ অযথা কারণে বের হয়েছে এবং উপযুক্ত কোনো ব্যাখ্যা দিতে পারেনি পুলিশকে।

সিএমপির কোতোয়ালী জোনের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার নোবেল চাকমা বলেন, ‘তাদের প্রত্যেকের কাছে বাসা থেকে বের হওয়ার কারণ জানতে চাই। সেখানে কয়েকজন তাদের সমস্যা এবং প্রয়োজন কারণ ব্যাখ্যা করে। আমরা তাদের ছেড়ে দিয়েছি। বাকি ১৫-২০ জন কোনো উপযুক্ত কারণ জানতে পারেননি। তারা অযথা ঘোরাঘুরি করতে বের হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, তাদের মধ্যে যারা লিখতে পারে ওদের কাগজে ৫০০ বার লিখতে দিয়েছিলাম, ‘আমি দুঃখিত, অহেতুক বাসা হতে বের হব না’। কিন্তু এতবার লিখতে অনেক সময় লাগে, হাতও ব্যথা করে। অনেকে ২৫০-৩০০ পর্যন্ত লিখেছে, তারপর তাদের ছেড়ে দিয়েছি। আর যারা লিখতে পারে না তাদের ১ হাজার বার বলতে হয়েছে ‘আমি ভুল করেছি, আর আসব না’। তারা বলেছে। এরপর তাদের ছেড়ে দিয়েছি।

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, আমরা নগরবাসীকে বারবার বলেছি করোনা সংক্রমণ রোধে যেন বাসায় থাকে। কিন্তু উপযুক্ত কারণ ছাড়া অনেকে বের হচ্ছে। তাই আজ এই ব্যতিক্রমী শাস্তি দিয়েছি।

কেএ/ডিএ