• ঢাকা
  • সোমবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২০ | ১০ কার্তিক, ১৪২৭ | ৯ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি

বিকাল ৩:২৫

‘আ’মেরিকা প্রবাসী’ পরিচয়ে বিয়ে, স্ত্রী’র ১১ লাখ টাকা নিয়ে লাপাত্তা


Share with friends

প্রথমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইমো দিয়ে গড়ে তোলে বন্ধুত্ব, পরে রাজশাহীর এক নারীকে প্রে’মের ফাঁদে ফেলে বিয়ে করেন মাদারীপুরের কথিত আ’মেরিকা প্রবাসী সাইফুল খান শামীম।

Home2 Side ads

এর মধ্যে ব্যবসা’সহ নানা প্রলো’ভনে হাতিয়ে নেয় প্রায় ১১ লাখ টাকা। এ ঘটনায় রাজশাহীর পবা থা’নায় মা’মলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ওই নারী। পু’লিশ বলছে, আ’সামি গ্রে’ফতারে চেষ্টা চলছে।

Home2 Side ads
Home2 Side ads

ঘটনার শুরু এ বছরের ২ মা’র্চ। ভুক্তভোগীর ইমো নম্বরে এসএমএস এর মাধ্যমে শুরু হয় বন্ধুত্ব। পরে তা গড়ায় প্রে’মের স’ম্পর্কে। ঘনিষ্ঠ স’ম্পর্কের আড়ালে কথিত প্রে’মিক জানতে থাকেন মে’য়েটির আর্থিক অবস্থা। পরে ২৪ জুন রাজশাহীতে মে’য়ের বাড়িতে এসে মি’থ্যে পরিচয়ে বিয়েও করে প্রতারক শামীম। পরদিনই সপ্তাহখানেক পর ফেরার আশ্বা’স দিয়ে ব্যবসায়িক জরুরি কাজের কথা বলে ঢাকায় চলে আসে শামীম।

এরই মধ্যে বিয়ের পূর্ব ও পরবর্তী সময়ে জুন ও জুলাই মাসে আট দফায় কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে দশ লাখ নব্বই হাজার টাকা হাতিয়ে নেন তিনি। ব্যবসা’সহ বিভিন্ন প্রলো’ভন দেখিয়ে শামীম টাকা নিয়েছে বলে দাবি ভুক্তভোগীর।

পরে ২৩ আগস্ট প্রতারক শামীম ভুক্তভোগী ওই নারীকে নিজ বাড়িতে নেয়ার কথা বলে শ্বশুর বাড়ি আসে। এসময় ব্যবসায়ীক প্রয়োজন দেখিয়ে পঞ্চাশ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যান তিনি। এতে পরিবারের স’ন্দেহ হলে থা’নার মাধ্যমে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তার দেয়া ঠিকানাটি ভু’য়া। তবে এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর পরিবার ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হননি।

পু’লিশ বলছে, আ’সামিকে গ্রে’ফতারের পর নেয়া হবে আইনি ব্যবস্থা।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পু’লিশের পরিদর্শক বানী ইস’রাইল বলেন, ‘শামীম মে’য়েটিকে বলেছিল সে নাকি আ’মেরিকায় থাকত, তারপর ঢাকায় আসছে বিজনেস করার জন্য। তার জন্য তার টাকা দরকার। মে’য়েটি স’ম্পর্ক গড়ে ওঠার জন্য বিভিন্ন সময় শামীমকে টাকা-পয়সা দিত।’

তিনি আরও বলেন, ‘মা’মলা’টি বর্তমানে ত’দন্তে আছে। তাকে শনাক্ত করে গ্রে’ফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।’

গেল ৫ সেপ্টেম্বরের পর থেকে ভুক্তভোগী নারীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ রেখেছে প্রতারক শামীম। আর ১৩ সেপ্টেম্বর বাদী হয়ে রাজশাহীর পবা থা’নায় মা’মলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী নিজেই।

single page ads 3