• ঢাকা
  • শনিবার, ১৯শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ৯ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

বিকাল ৩:২৪

করোনা দুর্যোগে সুস্থ থাকার টিপস দিলেন শাওন-বাঁধন


Share with friends

করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট দুর্যোগে গান-কথায় সামাজিক সচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে নিয়মিত আয়োজন করা হচ্ছে ‘মিউজিক ফর পিস-এফবি লাইভ’। ২৬ মা’র্চ থেকে প্রতিদিন রাত ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত লাইভ অনুষ্ঠানটিতে অংশগ্রহণ করছেন দেশ-বিদেশের জনপ্রিয় তারকারা।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) এ আয়োজনে উপস্থিত হন জনপ্রিয় অ’ভিনেত্রী ও সংগীতশিল্পী মেহের আফরোজ শাওন, অ’ভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন, সংগীতশিল্পী পারভেজ সাজ্জাদ, পূজা, নাদিয়া ডোরা, প্রত্যয় খান, নদী, নিলয়, তারেক তূর্য এবং তানজীব সরোয়ার। সামাজিক সচেতনতা তৈরিতে নিয়মিত এ আয়োজনটি করছে গানবাংলা টেলিভিশন।

সংগীত পরিচালক কৌশিক হোসেন তাপসের সঞ্চালনায় গান কথার এ আয়োজনে উপস্থিত হয়ে প্রত্যেক শিল্পীই দুর্যোগে মানুষকে নিজের শারীরিক সুস্থতার পাশাপাশি মনের সুস্থতার প্রতিও যত্নবান হওয়ার আহ্বান জানান। পরিবেশন করেন গান।

গানের শিল্পীদের মাঝে মধ্যমনি হয়ে ওঠা দুই তারকা শাওন ও বাঁধনের কথায় মিললো একই সুর। দু’জনই সন্তানদের সঙ্গে ঘরে বসেই সময় কা’টাচ্ছেন। পরিবারকে সময় দেওয়ার পাশাপাশি শাওন চর্চা করছেন নজরুলসংগীত। দুই সন্তান নিষাদ ও নিনিতের কাছ থেকে পিয়ানোও শেখার পরিকল্পনা করছেন। অন্যদিকে তাদেরও নানা ধরনের সৃজনশীল কাজে ব্যস্ত থাকতে উৎসাহিত করছেন।

শাওনের মতে, গান শোনা, বই পড়াসহ মানসিকভাবে সুস্থ থাকতে এই সময়টাকে যতভাবে কাজে লাগানো যায়, সকলের তাই করা উচিত।

অন্যদিকে বাঁধনের সময় কাটছে পরিবার ও কন্যা সন্তানের প্রতি দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে। দু’র্যোগে সকলের মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে ব্যক্তিজীবনে দন্ত চিকিৎসক এ তারকা পরাম’র্শ দিলেন পরিমিত ও সঠিক খাদ্যাভ্যাস এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে মানবদেহের প্রয়োজনীয় ইমিউন সিস্টেম ঠিক রাখতে পর্যাপ্ত ঘুমানোর।

শি’শুদের প্রতি বিশেষ যত্নবান হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বাঁধন আরও বলেন, ‘এই সময়টায় শি’শুদের মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি আমাদের বিশেষ যত্নবান হতে হবে। তারা ভ’য় পেতে পারে। তারা খবর দেখছে, বড়দের কাছ থেকে শুনছে। করোনা ভাইরাসটি স’ম্পর্কে তাদেরও শোনান। তাদেরও পরিস্থিতিটা বুঝিয়ে বলুন, সচেতন করে তুলুন।’

বাঁধনের সাথে একমত হয়ে শাওন বলেন, ‘নিজেকে সময় দেওয়ার পাশাপাশি আমি আমা’র দুই সন্তানকে সময় দিচ্ছি। বড় ছে’লে নিষাদের হাতে তার বাবার (হুমায়ূন আহম’দের) বইগুলো তুলে দিচ্ছি। ছোট ছে’লেকে বাংলা শেখাচ্ছি। আমা’র মনে হয় এখনই সময় শি’শুদের আরও বেশি মানবিক করে তোলার। আমি তাদের খাবার অ’পচয় না করতে পরাম’র্শ দিচ্ছি। এখন তারা বাড়তি খাবার নেয় না। প্রতিদিনই কিছু খাবার ছাদে গিয়ে কাককে খাওয়ায়। কিংবা বাড়তি খাবারগুলো দাড়োয়ানের মাধ্যমে বাইরের ভ্রাম্যমান অসহায় প্রা’ণীদের জন্য পৌঁছে যায়।’

অনুষ্ঠানে হুমায়ূন আহমেদ পরিচালিত ‘শ্রাবণ মেঘ দিন’ সিনেমা’র গান ‘সোয়াচান পাখি’ গানটি পরিবেশন করেন শাওন। প্রশ্ন আসে, বেঁচে থাকলে এই দুর্যোগে কি করতেন হুমায়ূন আহমেদ?

উত্তরে জনপ্রিয় এ কথা সাহিত্যিক ও নির্মাতার জীবনসঙ্গী শাওন বলেন, ‘এটা ঠিক হুমায়ূন থাকলে অনেক কথা সহ’জভাবে মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারতেন। যেটা আম’রা বলবার চেষ্টা করছি, সরকার প্রধান থেকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর পর্যন্ত যে কথাগুলো মানুষের কাছে পৌঁছাতে চেষ্টা করছেন, সেগুলো খুব সাধারণভাবে পৌঁছে দিতে পারতেন।’

জাতিসংঘের সহায়ক সংস্থা ইউএনডিপি ও দেশের বৃহত্তর মোবাইল নেটওয়ার্ক কোম্পানি রবি নেটওয়ার্কের সহযোগিতায় আয়োজিত অনুষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠান দুটিসহ গানবাংলা টেলিভিশনের ফেসবুক পেজে প্রতিদিন উপভোগ করছেন প্রায় পৌনে দুই কোটি দর্শক। অনুষ্ঠানটিতে ইতিমধ্যেই অংশ নিয়েছেন প্রায় শতাধিক দেশিয় ও আন্তর্জাতিক তারকা শিল্পী। পুরো আয়োজনটির সম্প্রচার সমন্বয় করছেন সংগীতশিল্পী জুয়েল মোর্শেদ।