• ঢাকা
  • সোমবার, ২১শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১১ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

রাত ৩:০৬

কালোবাজারে ৭০ বস্তা স’রকারি চাল বিক্রি করে দিলেন ছাত্রলীগ নেতা


Share with friends

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজে’লায় ১৮৬ বস্তা স’রকারি চাল উ’দ্ধারের ২৪ ঘণ্টা না যেতেই এবার দীঘিনালা উপজে’লায় কালোবাজারে বিক্রি হওয়া খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৭০ বস্তা চাল উ’দ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে মাটিরাঙ্গা ও দীঘিনালা থেকে ২৫৬ বস্তা স’রকারি চাল উ’দ্ধার করা হলো। সোমবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে দীঘিনালা উপজে’লার মেরুং বাজার থেকে ৭০ বস্তা স’রকারি চাল উ’দ্ধার করেন দীঘিনালা উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা (ইউএনও) মোহাম্ম’দ উল্ল্যাহ।

এ সময় অ’বৈধভাবে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল কেনার অ’পরাধে মো. দেলোয়ার হোসেন দুলু নামে একজনকে আ’ট’ক করে পু’লিশ। এ ঘটনার পর থেকে প’লাতক রয়েছেন চালের ডিলার মেরুং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জহির উদ্দিন। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় নিযুক্ত ডিলার মো. জহির উদ্দিন ১০ টাকা মূল্যের চাল নির্ধারিত কার্ডধারীদের মাঝে বিতরণ না করে তা কালোবাজারে বিক্রি করে দেন। বি’ষয়টি গো’পন সূত্রে জানতে পেরে মেরুং বাজারে অ’ভিযান চালান দীঘিনালা উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা মোহাম্ম’দ উল্ল্যাহ। এ সময় একটি গুদাম থেকে ৭০ বস্তা স’রকারি চাল উ’দ্ধার করা হয়। যার পরিমাণ প্রায় ২১০০ কেজি।

মেরং বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি কেএম ইসমাইল হোসেন বলেন, সোমবার দুপুরে ইউএনও এসে মেরুং বাজারের একটি বন্ধ গুদাম খুলে ৭০ বস্তা স’রকারি চাল উ’দ্ধার করেন। এ সময় অ’বৈধভাবে স’রকারি চাল কেনার অ’পরাধে মো. দেলোয়ার হোসেন দুলুকে আ’ট’ক করা হয়। তবে চালের ডিলার মো. জহির উদ্দিন প’লাতক রয়েছেন।

দীঘিনালা উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা (ইউএনও) মোহাম্ম’দ উল্ল্যাহ বলেন, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় নিযুক্ত ডিলার মো. জহির উদ্দিন ১০ টাকা মূল্যের চাল বিতরণ না করে কালোবাজারে বিক্রি করে দেন। এমন তথ্যের ভিত্তিতে মেরুং বাজারে অ’ভিযান চা’লিয়ে ৭০ বস্তা স’রকারি চাল উ’দ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জ’ড়িতদের বি’রুদ্ধে মা’মলা করা হবে।