• ঢাকা
  • রবিবার, ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১০ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

রাত ৩:২৭

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় একটি দুস্থ পরিবারও অনাহারে থাকবে না : তোফায়েল


Share with friends

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, দেশের দারিদ্র্যপীড়িত জনগোষ্ঠীর ভাগ্যের পরিবর্তন করাই আওয়ামী লীগের রাজনীতি। বাংলার প্রতিটি মানুষের আশ্রয়, শিক্ষা, চিকিৎসা, খাদ্য ও বস্ত্র নিশ্চিত করতে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার কাজ করছে। কাজেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় একটি দুস্থ পরিবারও অনাহারে থাকবে না, না খেয়ে থাকবে না।

বৃহস্পতিবার ভোলা জে’লা আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে টেলি কনফারেন্সে মতবিনিময়কালে তোফায়েল আহমেদ আরও বলেন, সরকারি ত্রাণের পাশাপাশি রোজার মাসে তার নির্বাচনী এলাকার ১৩টি ইউনিয়ন ও পৌরসভা’র মোট আট হাজার পরিবারকে দু’দফায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করবেন তিনি। রমজানের প্রথম দিকে ও ১৫ রমজানের পর এ খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হবে। এর আগেও ব্যক্তিগত উদ্যোগে নির্বাচনী এলাকার কয়েক হাজার গরিব ও অসহায় পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন তিনি। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সরকারিভাবে স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমেও ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম সুন্দরভাবে পরিচালিত হচ্ছে।

করো’নায় দুর্গত এলাকার দুস্থ মানুষের তালিকা সঠিকভাবে প্রণয়নের জন্য নেতাদের নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, ঘরে ঘরে খাবার পৌছে দিতে হবে। সরকারি ত্রাণ ও নিজস্ব খাদ্যসামগ্রী বিতরণ থেকে একটি অসহায় মানুষও যেন বাদ না পড়েন, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। কেউ যেন অনাহারে না থাকেন, সে ব্যবস্থা করতে হবে।

দ্বীপ জে’লাখ্যাত ভোলা এখনো করো’নামুক্ত থাকায় শুকরিয়া জানিয়ে বর্ষীয়ান এই আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, সবার সচেতনতায় ভোলা জে’লায় এখনো করো’না হানা দিতে পারেনি। তবে করো’না থেকে মুক্ত থাকতে সবাইকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩১ দফা নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

ভোলা জে’লা পরিষদ কার্যালয় থেকে এই মতবিনিময় সভায় অংশ নিয়েছেন জে’লা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জে’লা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জহুরুল ইস’লাম নকিব, সদর উপজে’লা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও উপজে’লা চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন এবং জে’লা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান নজরুল ইস’লাম গোলদারসহ ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকরা।