• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৪শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৪ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

রাত ১২:০৩

সামাজিক দূরত্ব রক্ষার নিদর্শনা মানছেন না কেউ!


Share with friends

প্রকাশিত: ২:৪২ অপরাহ্ণ, ১৯ এপ্রিল ২০২০

ঝালকাঠির রাজাপুরে অধিকাংশ মানুষ ঘরমুখো হচ্ছেনা মানছেনা সামাজিক দূরত্ব। উপজেলা প্রশাসন তাদের অভিযান অব্যাহত রাখলেও পুলিশের ভূমিকা চোখে পড়ার মত নয় বলে দাবী সচেতন মহলের। রাজাপুর সহ এ অঞ্চলের মানুষের আতঙ্ক শুধু ঢাকা ও নারায়নগঞ্জ ফেরৎরা। বরিশাল জেলা লকডাউন থাকলেও অসাধু উপায়ে এম্বুলেন্স,ট্রাক,মাহিন্দ্রা,ইজিবাইক ও মটর সাইকেলে চড়ে বাড়ীর উদ্দেশ্যে প্রতিদিন আসছে লোকজন। রাজাপুর বাইপাস মোড়,মেডিকেল মোড় ও বাঘড়ী বাজারসহ উপজেলা জুড়েই ভোররাত থেকে ভাড়ায় চালিত ইজিবাইক ও মটর সাইকেল অবস্থান করে। ঢাকা থেকে আসা যাত্রীদের কাছ থেকে প্রায় দীগুন ভাড়া নিয়ে তাদেরকে গোপনে বাড়ীতে পৌঁছে দিয়ে আসে ইজিবাইক ও মটর সাইকেল ড্রাইভাররা।

করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে জনসমাগম কমাতে উপজেলা প্রশাসন রাজাপুর বাইপাস মোড়ের কাঁচা বাজার ,রাজাপুর বাজার ও বাঘড়ীর সাপ্তাহিক হাট রাজাপুর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে স্থানান্তর করে। তাতেও কমছেনা জনসমাগম তার বিপরিতে বাড়ছে উপচেপড়া ভিড়। প্রতিদিন এই বাজারে হাজারো ত্রেুতাগন আসে তাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য কেনাকাটা করতে। মুদির দোকান গুলোতেও মানা হচ্ছেনা সামাজিক দুরত্ব। গ্রামের চায়ের দোকান গুলোতে সন্ধ্যার পরে আড্ডা জমিয়ে দোকানিরা সরকারের দেয়া নির্দেশনাকে বৃদ্ধাআঙ্গুলি দেখিয়ে চা, পান, সিগারেট বিত্রিুর উৎসবে মেতে ওঠে। আবার কিছু দোকানের সাটার (জাপ) আটকানো থাকে কিন্তু যখনি বাহির থেকে নক করা হয় অথবা কোন পন্য চাওয়া হয় ঠিক তক্ষনি ভিতর থেকে সেই পন্য চলে আসে।

উপজেলা নির্বাহি অফিসার মো:সোহাগ হাওলাদার দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচলনা অব্যাহত রেখেছেন। কিন্তু স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কোনো ভুমিকাই দেখা যাচ্ছেনা সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে। যখনই উপজেলা র্নিবাহি অফিসার, পুলিশ ও সেনাবাহিনীর গাড়ী দেখে তখন অনেক দোকানের সাটার (জাপ) আটকে তারা ভিতরে লুকিয়ে পড়ে,স্টান্ডে থাকা ইজিবাইক ও মটর সাইকেল গুলো নিরাপধে চলে যায় প্রশাসনের গাড়ী চলে যাওয়া মাত্রই আবার আগের মত উৎসব মূখর পরিবেশে ফিরে আসে তারা।

এআইআ/এইচি