• ঢাকা
  • শুক্রবার, ৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৫শে রমজান, ১৪৪২ হিজরি

সন্ধ্যা ৭:১০

এবার ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হলো মামুনুল হককে


Share with friends

গ্রে’ফতার হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পু’লিশের (ডিবি) কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে।রোববার রাতে তাকে রাজধানীর মিন্টু রোডের ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়।

রোববার রাতে ডিবি সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

এর আগে দুপুর ১টায় ওই মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রে’ফতার করে ঢাকা মহানগর পু’লিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগ।উপকমিশনার (ডিসি) হারুন-অর রশিদের নেতৃত্বে এই গ্রে’ফতার অ’ভিযান চলে।এরও আগে দুপুর ১২টা থেকে মোহাম্ম’দপুরের জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসা এলাকায় গোয়েন্দা সদস্য ও দাঙ্গা পু’লিশের সদস্যরা অবস্থান নেন। মামুনুল হককে গ্রে’ফতারের পর প্রথমে শ্যামলীতে পু’লিশের তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনারের কার্যালয়ে নেওয়া হয়।এরপর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সেখান থেকে দুপুর ২টায় তাকে তেজগাঁও থা’নায় নেওয়া হয়।

দেশজুড়ে ব্যাপক আ’লোচিত এই হেফাজত নেতার বি’রুদ্ধে শুধু রাজধানীতেই ১৭টি মা’মলা রয়েছে। এরমধ্যে ১৫টি মা’মলা পু’লিশ বাদী হয়ে দায়ের করে।আর বাকি দুটির মধ্যে এক যুবলীগ নেতা ও একজন সাধারণ মানুষ বাদী হয়ে দায়ের করেন।

পু’লিশ সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ৫ মে মতিঝিলের শাপলা চত্বরে হেফাজতের তা’ণ্ডবের পর ১৫টি মা’মলায় মামুনুল হককে আ’সামি করা হয়েছে।মা’মলাগুলোর বাদী হয়েছে পু’লিশ।সর্বশেষ গত ৫ এপ্রিল পল্টন থা’নায় যুবলীগের এক নেতা বাদী হয়ে মামুনুল হকের বি’রুদ্ধে একটি মা’মলা করেন। আর মোহাম্ম’দপুর থা’নায় আরেকটি মা’মলা করেন সাধারণ এক ব্যক্তি।

ডিএমপির একটি সূত্র জানায়, মামুনুল হক ডিবির মতিঝিল বিভাগে ৮টি মা’মলা, লালবাগ বিভাগে দুটি ও তেজগাঁও বিভাগে একটি মা’মলার এজাহারভুক্ত আ’সামি। এসব মা’মলা ত’দন্তাধীন। এ ছাড়া মতিঝিল থা’নায় একটি ও পল্টন থা’নায় ৪টি মা’মলায় আ’সামি মামুনুল হক।এসব মা’মলার মধ্যে ১৫টি হয়েছে ২০১৩ সালের ৫ মে মতিঝিলের শাপলা চত্বরে হেফাজতের ঘটনার পর।

মামুনুল হককে গত বছর মোহাম্ম’দপুরে একটি ভাংচুরের মা’মলায় গ্রে’ফতার দেখানো হয়েছে বলে জানান ডিসি হারুন অর রশিদ। তিনি বলেন, তার (মামুনুল হক) বি’রুদ্ধে মতিঝিল, পল্টন ও নারায়ণগঞ্জে আরও কয়েকটি মা’মলা আছে।পরে ওই মা’মলাগুলো সমন্বয় করা হবে। আগামীকাল (সোমবার) তাকে আ’দালতে হাজির করা হবে।