• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

বিকাল ৪:৫১

এলাকাবাসী না আসায় জানাজা-দাফন সম্পন্ন করলো পুলিশ


Share with friends

করো’না উপসর্গে সাতক্ষীরার পাট’কেলঘাটা থা’না সদরের পশ্চিমপাড়ায় মা’রা যান আব্দুর রহিম। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে নিজ বাড়িতে জ্বর, শ্বা’সক’ষ্ট ও উচ্চর’ক্তচাপজনিত কারণে মা’রা যান এই বৃদ্ধ। মা’রা যাওয়ার পর এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে করো’না আতঙ্ক। এ সময় তার জানাজা-দাফনেও এগিয়ে আসেনি গ্রামবাসী। পরে থা’না পু’লিশ এসে তার দাফন সম্পন্ন করে।

স্থানীয় সরুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মতিয়ার সরদার জানান, গতকাল (সোমবার) থেকে আব্দুর রহিমের প্রচণ্ড শ্বা’সক’ষ্ট ও শুকনা কাশি দেখা দেয়। সেই সঙ্গে জ্বরও ছিল। শাকদাহ এলাকার স্থানীয় এক গ্রাম্য ডাক্তারকে দেখায় তার পরিবার। কিন্তু অবস্থার উন্নতি হয়নি। আজ (মঙ্গলবার) তিনি মা’রা যান।

তিনি বলেন, মা’রা যাওয়ার পর ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম; তবে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করেছি। বিকেল ৪টার দিকে তার জানাজা ও দাফন হয়েছে। তবে দাফনে এলাকার মানুষ সাহায্য করেনি। পাট’কেলঘাটা থা’না পু’লিশের ওসি ও পু’লিশ সদস্যরা দাফনের ব্যবস্থা করেন।

পাট’কেলঘাটা থা’নার ওসি কাজী ওয়াহিদ মোর্শেদ বলেন, বেলা ১১টার দিকে সংবাদ পাওয়ার পর আম’রা ঘটনাস্থলে যাই। গিয়ে দেখা যায়, করো’না আতঙ্কে ওই পরিবারের পাশে কেউ নেই। পরবর্তীতে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা নমুনা সংগ্রহের জন্য ঘটনাস্থলে আসেন। এরপর দাফনের প্রক্রিয়ার জন্য প্রস্তুতি নেওয়া হয়।

তিনি বলেন, ওই এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা কেউ সহযোগিতা করতে এগিয়ে আসেনি। পরে তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে থা’না পু’লিশ সদস্যরা জানাজা ও দাফন সম্পন্ন করেন।

তালা উপজে’লা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মক’র্তা রাজীব সরদার বলেন, মৃ’তের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ওই পরিবারটি লকডাউন করা হয়েছে।

মৃ’ত্যুর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ওই ব্যক্তি স্ট্রোকে আ’ক্রান্ত হয়ে মা’রা গেছেন বলে আম’রা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি। তিনি করো’না আ’ক্রান্ত ছিলেন কিনা রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর জানা যাবে।

অন্যদিকে মঙ্গলবার সকালে জে’লার আশাশুনি উপজে’লার কাকবাশিয়া গ্রামে রেজাউল করিম নামের এক কলেজ শিক্ষকের করো’না উপসর্গে মৃ’ত্যু হয়েছে।

আশাশুনি উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা মীর আলীফ রেজা জানান, মৃ’ত শিক্ষকের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।