• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

বিকাল ৫:০১

রোগীদের সেবা দিতে প্রধানমন্ত্রীত্ব ছেড়ে চিকিৎসা পেশায় ফিরলেন আয়ারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী !


Share with friends

বৈশ্বিক ম’হা’মা’রি করো’নাভাই’রাসে ল’ণ্ডভ’ণ্ড হয়ে গেছে গোটা বিশ্ব। এই ভা’ই’রাসে বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত বাড়ছে মৃ’ত ও আ’ক্রা’ন্তের সংখ্যা। ফলে দেশের জনগণকে এই ম’হা’মা’রি থেকে বাঁ’চা’তে পুনরায় চিকি’ৎসা পেশায় ফিরেছেন আয়ারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ডা. লিও ভা’রাদকার।

ম’হা’মা’রি এই সং’কটের এই মুহূর্তে প্রতি সপ্তাহে তিনি এক শিফটে করো’না রো’গীদের চিকি’ৎসা’সেবা দেওয়ার কাজ করবেন। দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এ তথ্য জানিয়েছে।

ডাবলিনের ট্রিনিটি কলেজ থেকে তিনি জেনারেল ফিজিসিয়ান হিসেবে উত্তীর্ণ হন। তারপর রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের পেছনে সময় দিতে গিয়ে ২০১৩ সালে তিনি আইরিশ মেডি’কেল কাউন্সিল রেজিস্টার থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেন। ২০১৭ সালে তিনি ফাইন গায়েল রাজনৈতিক দলের নেতা নির্বাচনে জয়লাভ করেন।

কোভিড-১৯ সং’ক্র’মণের মুখে চিকি’ৎসক পেশায় ফিরে যেতে লিও ভা’রাদকারের কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছে ফাইন গায়েল। পার্টির একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, চিকি’ৎসক হিসেবে এই সং’ক’টের মুহুর্তে তিনি স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের সামান্য সহযোগিতা করতে চেয়েছেন, পার্টির পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে কোনো আ’পত্তি নেই।

করো’না’ভা’ই’রাস প্রতিরো’ধে এবং এই দু’র্যো’গ মোকা’বিলায় গত মাসে আইরিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী সিমন হ্যারিস দেশটির স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের জন্য একটি নিয়োগ প্রক্রিয়ার শুরু করেন। তিনি অ’ভিজ্ঞ স্বাস্থ্য কর্মীদের তাতে অংশ নিতে একটি বার্তা দেন। বার্তাটি হলো, ‘তোমা’র দেশের এখন তোমাকে প্রয়োজন।’

দেশটির স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ জানিয়েছে, এমন নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর দেশের ৭০ হাজারের বেশি স্বাস্থ্যকর্মী তাদের কাজে পুনরায় ফেরত আসার জন্য নাম নিবন্ধিত করেছেন। এছাড়া, প্রধানমন্ত্রী ভা’রাদকার ইতোমধ্যে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রো’গীদের চিকি’ৎসা সেবা দিতে শুরু করেছেন।

মা’র্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রা’ম্প হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে যু’ক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বরিস জনসনের জন্য শুভকামনা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘গোটা আ’মেরিকা বরিস জনসনের জন্য প্রার্থনা করছে। তিনি (বরিস জনসন) আমা’র ভাল বন্ধু, সজ্জন মানুষ ও বড় নেতা।’ ট্রা’ম্প আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন দ্রুতই সেরে উঠবেন, কারণ তিনি শক্তিশালী মানুষ।

চিকি’ৎসক সারাহ জারভিস বিবিসিকে বলেছেন, বরিস জনসনের বুকের এক্সরে হবে। ফুসফুসেরও পরীক্ষা হবে। তার শ্বা’সক”ষ্ট হচ্ছে কি না, বুঝতে এই পরীক্ষা দুটো করার কথা। হাসপাতাল থেকে ছাড় পাওয়ার আগে হৃদযন্ত্র ঠিকঠাক কাজ করছে কি না, দেখতে ইলেক্ট্রোকার্ডিওগ্রাম করার কথা আছে। তাছাড়া অক্সিজেনের মাত্রা, শ্বেত কণিকার পরিমাণ, লিভা’র ও কিডনি পরীক্ষা করে দেখা হবে।

গত ২৭ মা’র্চ করো’না’ভা’ই’রাস শনাক্ত হওয়ার পর থেকে বরিস জনসন বাসায় থেকে কাজ করছিলেন। সবশেষ তাকে জনসমক্ষে দেখা গেছে, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়। ডাউনিং স্ট্রিটের বাসভবন থেকে এনএইচএসের কর্মীদের ওই দিন তিনি প্রশংসা করেন।

এর পর দিন করো’না’ভা’ই’রাস নিয়ে একটি বৈঠকে দূর থেকে সভাপতিত্ব করেন তিনি। শুক্রবার টুইটারে প্রকাশিত এক ভি’ডিওতে তিনি জানান, এখনও তার উপসর্গগুলো রয়ে গেছে।

বরিস জনসনের বান্ধবী ক্যারি সিমন্ডস অ’ন্তঃস’ত্ত্বা। তার মধ্যেও করো’নার উপসর্গ দেখা দিয়েছে। তবে উপসর্গ থাকা সত্ত্বেও তিনি পরীক্ষা করে তা নিশ্চিত হতে চান না। তাছাড়া, তার করো’নার কী’ কী’ লক্ষণ বা উপসর্গ রয়েছে, এ বিষয়েও বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

এছাড়া ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও সরকারের প্রধান স্বাস্থ্য পরাম’র্শকের মধ্যে উপসর্গ দেখা দেওয়ার পর তারা সেলফ-আইসোলেশনে রয়েছেন।