• ঢাকা
  • সোমবার, ২১শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১১ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

রাত ৪:৩৮

সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য দুঃসংবাদ


Share with friends

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় সরকারি সাধারণ ছুটি বাড়িয়ে ২৩ এপ্রিল পর্যন্ত করেছে সরকার। সেই সঙ্গে ২৪ ও ২৫ এপ্রিল সাপ্তাহিক ছুটিও যুক্ত হচ্ছে।

জানা গেছে, ১৫ এপ্রিল ও ১৬ এপ্রিল সাধারণ ছুটি থাকবে। এরপর ১৭ ও ১৮ এপ্রিল সাপ্তাহিক ছুটি থাকবে। পরে ১৯ থেকে ২৩ এপ্রিল সাধারণ ছুটির থাকবে সঙ্গে ২৪ ও ২৫ এপ্রিল সাপ্তাহিক ছুটিও যুক্ত হবে।

আর এই ছুটির মধ্যেই অফিস ফাঁকি দেয়া সরকারি কর্মক’র্তা-কর্মচারীদের জন্য বিরাট দুঃসংবাদ দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে দেশের সকল সরকারি চাকরিজীবীদের ব্যাপারে একটি কড়া নির্দেশ বিভাগীয় কমিশনারদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

বিভাগীয় কমিশনাররা এটি ডিসিদের কাছে পাঠিয়েছেন। ডিসিরা সেই নির্দেশনা উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তাদের (ইউএনও) পাঠিয়েছেন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মাঠ প্রশাসনে পাঠানো সেই নির্দেশনায় বলা হয়েছে, জে’লা পর্যায়ের অফিসারদের উপজে’লাভিত্তিক এবং উপজে’লা পর্যায়ের অফিসারদের ইউনিয়নভিত্তিক সংযুক্ত করে কাজে লাগান। যেসব কর্মক’র্তা-কর্মচারী কর্মস্থলে উপস্থিত নেই তাদের তালিকা তৈরি করে পাঠান।

এর আগেও করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ছুটি চলাকালীন সব সরকারি কর্মক’র্তা-কর্মচারীকে তাদের নিজ নিজ কর্মস্থল এলাকায় থাকতে একাধিকবার আদেশ জারি করেছিলো মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। কিন্তু অনেকেই এই নির্দেশনা অমান্য করেছে।

এমন অবস্থায় যারা কর্মস্থল এলাকায় উপস্থিত নেই তাদের তালিকা করে ঢাকায় পাঠাতে জে’লা প্রশাসকদের (ডিসি) এবার কড়া নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তবে অনুপস্থিত কর্মক’র্তাদের তালিকা কবে নাগাদ পাঠাতে হবে সেটি নির্ধারণ করে দেয়নি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

এ ব্যাপারে একাধিক জে’লার ডিসির সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে তাদের কাছে এ নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মশিউর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, কর্মস্থলে অনুপস্থিত কর্মক’র্তাদের তালিকা পাঠাতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে নির্দেশনা পেয়েছি। কর্মস্থলে যারাই অনুপস্থিত থাকবেন তাদের তালিকা পাঠানো হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, অনুপস্থিতদের তালিকা পাঠানোর কোনো তারিখ উল্লেখ করেনি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। তবে এমন জরুরি পরিস্থিতিতে সরকারের নির্দেশনা যদি বেতনভুক্ত লোকজনই না মানেন তাহলে শা’স্তির বিকল্প নেই।